নোটিফিকেশন সিস্টেমে পরিবর্তনের আশা করছেন আইফোন ব্যবহারকারীরা

১. ফেসটাইমেই ‘জুম’
অ্যাপলের ডিভাইসে ভিডিও কল করার সেবা ফেসটাইমে বোধ হয় এবার সবচেয়ে বড় পরিবর্তন আনছে অ্যাপল। স্পেশাল অডিও অন্যান্য শব্দ থকে মানুষের কণ্ঠ আলাদা করে শোনাবে। এতে গ্রুপ কল আগের চেয়ে স্বাভাবিক মনে হবে। আর গ্রুপ ভিডিও কলে গ্রিড ভিউ নামে সুবিধা যুক্ত হচ্ছে। এটা নির্বাচন করলে সবার ভিডিও একই আকারে দেখাবে, তবে যিনি কথা বলছেন, তিনি থাকবেন কিছুটা আলাদা। আইসোলেশন মোড নির্বাচন করলে ব্যাকগ্রাউন্ড শব্দ বাদ দিয়ে কেবল বক্তার কথা গুরুত্ব পাবে।

ফেসটাইমে পোর্ট্রেট মোড আসছে। এতে ছবির বিষয়বস্তু ঠিক রেখে ব্যাকগ্রাউন্ড ঝাপসা করে দেওয়া যাবে।

সবচেয়ে বড় হালনাগাদ হলো ফেসটাইম লিংকস। অনেকটা জুমের মতো, আগাম কল ঠিক করে রেখে সবার সঙ্গে লিংক শেয়ার করতে পারবেন ব্যবহারকারী। নির্দিষ্ট সময়ে ওই লিংকে গিয়ে আমন্ত্রিতরা ভিডিও কলে যোগ দিতে পারবেন। সবচেয়ে বড় ব্যাপার, অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন এবং উইন্ডোজ পিসি ব্যবহারকারীরাও ওয়েব থেকে ফেসটাইম কলে যোগ দিতে পারবেন। আগে সুবিধাটি কেবল অ্যাপল ডিভাইস ব্যবহারকারীদের জন্য ছিল।

২. ‘সবকিছু’ শেয়ার করা যাবে
শেয়ার প্লে নামের সুবিধার আওতায় নতুন অনেক ফিচার আসছে আইফোনে। গান শোনা বা ভিডিও দেখার সময় ব্যবহারকারী তাঁদের পরিচিতজনদের সঙ্গে ডিভাইসের স্ক্রিন শেয়ার করতে পারবেন। এতে ফেসটাইম কলে অনেকে মিলে একসঙ্গে ভিডিও দেখা বা গান শোনা যাবে। আবার মনে করুন, আপনি একটি গান শুনছেন, অন্যজন প্লেলিস্টে পরের গান যুক্ত করতে পারবেন। স্ক্রিন শেয়ার করার সুবিধা অন্যান্য অ্যাপল ডিভাইসেও আসবে।

অ্যাপল মিউজিক এবং টিভি অ্যাপেও এটি কাজ করবে। আবার অন্যান্য ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা চাইলে অ্যাপলের সুবিধাটি গ্রহণ করতে পারবে। অর্থাৎ, অ্যাপল টিভি প্লাসে কোনো সিনেমা দেখার সময় তা বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে একসঙ্গে দেখা যাবে।

‘শেয়ারড্‌ উইথ ইউ’ নামের একটি অপশন যুক্ত হচ্ছে। আইমেসেজে আপনাকে কেউ কিছু পাঠালে তা এই অংশে পাবেন। যেমন কেউ ছবি পাঠালে তা ফটোজ অ্যাপের শেয়ারড্‌ উইথ ইউ অংশে দেখাবে।

৩. ‘চৌকস’ নোটিফিকেশন
নোটিফিকেশন সিস্টেমে অনেক দিন ধরেই বড় পরিবর্তনের আশা করছেন আইফোন ব্যবহারকারীরা। এবার সে পরিবর্তন আসছে। নোটিফিকেশন সামারি নামের অপশনে দিনভর আসা কম গুরুত্বপূর্ণ নোটিফিকেশনের যেগুলো আপনি দেখেননি, সেগুলো জমা হয়ে থাকবে। পরে সময়মতো চাইলে দেখে নিতে পারবেন।

ডু নট ডিস্টার্ব মোড সচল করলে আপনাকে বার্তা পাঠানোর আগে অন্যরা তা দেখতে পাবে। এতে বার্তা প্রেরক বুঝে যাবে, আপনি হয়তো শিগগিরই সে বার্তার উত্তর দেবেন না। আর ব্যাপারটি যদি খুব জরুরি হয়, তবে তা জানানোর অপশনও থাকবে।

ফোকাস মোড নামে আরেকটি সুবিধা আসছে। কাজ করছেন, অর্থাৎ ওয়ার্ক মোড নির্বাচন করে রাখলে কেবল যে অ্যাপ এবং কন্টাক্ট নির্বাচন করে দেবেন, কেবল তাঁরাই নোটিফিকেশন পাঠাতে পারবেন।

৪. ‘জীবন্ত’ লেখা
ভয় নেই। আইফোন থেকে লেখা বেরিয়ে চারপাশে কিলবিল করে ঘুরে বেড়াবে না। লাইভ টেক্সট নামের সুবিধায় কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে কোনো ছবিতে লেখা থাকলে তা পড়ে শোনাতে পারবে আইফোন, কপি করেও অন্য কোথাও পেস্ট করা যাবে।

কেবল ক্যামেরা নয়, অপারেটিং সিস্টেমের সব জায়গায় এই সুবিধা থাকবে। মনে করুন, দেয়ালে সাঁটা পোস্টারে ফোন নম্বর আছে, কল করার অ্যাপ থেকে সরাসরি সেই নম্বরে কল করা যাবে। আবার ওয়েব ঠিকানা থাকলে ক্যামেরা তাক করে লিংক নির্বাচন করলে ওয়েবসাইটে ঢোকা যাবে। আর ঠিকানা থেকে সরাসরি ম্যাপে অবস্থান বের করার সুবিধা থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

নাম লাইভ টেক্সট হলেও প্রাণী, বই বা অন্যান্য বস্তুও শনাক্ত করতে পারবে এটি।

৫. ‘বড়’ হচ্ছে ওয়ালেট
আইফোনের ওয়ালেট অ্যাপ এমনিতেই দারুণ। ব্যাংক কার্ড, পরিবহন সেবার কার্ডসহ অনেক কিছু এতে যুক্ত থাকে। তবে এখনো পকেটের ওয়ালেটের জায়গা নিতে পারেনি। অ্যাপল চাচ্ছে সে কাজটিই করতে। ওয়ালেট অ্যাপের ‘কার-কি’র মাধ্যমে গাড়ি চালুর সুবিধা আছে, তবে খুব বেশি প্রতিষ্ঠান সেটি সমর্থন করে না। ওয়ালেটে গ্রহণযোগ্য পরিচয়পত্র যুক্ত করার সুবিধাও আসবে। মনে করুন, অফিসে ঢোকার সময় পরিচয়পত্র স্ক্যান না করে আইফোনের ওয়ালেট অ্যাপে যুক্ত ভার্চ্যুয়াল আইডি স্ক্যান করে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে সেটি সমর্থন করতে হবে।

প্রযুক্তির পথ ও জয়গানের সব খবর তুলে এনে জীবন সহজ করছে ITSohor। দেশ ও বিদেশের প্রযুক্তির সর্বশেষ সংবাদ সবার আগে জানতে ভিজিট করুনঃ ITSohorএ।

আপনার মতামত, লাইক ও কমেন্টের সঙ্গে থাকুন আমাদের ITSohor এর ফেসবুক পেজে

HTML Snippets Powered By : XYZScripts.com